spot_imgspot_img

Purba Medinipur : কালিম্পংয়ে হোটেল বুকিং করতে গিয়ে হলদিয়ার মা ও ছেলে খোয়ালেন ২ লক্ষ টাকা, সাবধান থাকুন আপনারও !

হলদিয়া : কালিম্পংয়ে হোটেল বুকিং করতে গিয়ে প্রায় ৩ লক্ষ টাকা খোয়ালেন হলদিয়া টাউনশিপের এক মহিলা ও তাঁর ছেলে। ওই মহিলা প্রথমে টাকা দিয়ে হোটেল বুক করেন। এরপরই মোবাইলে একের পর এক মেসেজ আসে। তিনি খেয়াল করেন, তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে (Purba Medinipur) হোটেলে পেমেন্টের পরও প্রায় দু’ লক্ষ টাকা তোলা হয়েছে। ওই হোটেল সংস্থা বিষয়টি ‘ট্রানজাকশনাল এরর’ বা অনলাইন লেনদেনের ত্রুটি বলে জানিয়ে টাকা ফেরতের আশ্বাস দেয় মহিলাকে।

টাকা ফেরত পাওয়ার আশায় ওই সংস্থার ফাঁদে পড়ে তাদের আবারও টাকা পাঠান মহিলার ছেলে। তারপর থেকে ওই মহিলা যতবার টাকা ফেরত চেয়েছেন, ততবার হুমকি শুনেছেন। হলদিয়া থানার পুলিসের কাছে এই মর্মে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, হলদিয়া টাউনশিপের মাখনবাবুর বাজার সংলগ্ন শঙ্খিনী আবাসনে ‘রোজ’ ব্লকের বাসিন্দা সুতপা মণ্ডল হোটেল বুকিং করতে গিয়ে প্রতারকদের

খপ্পরে পড়ার অভিযোগ দায়ের করেছেন। তিনি কালিম্পংয়ে ঋষি রোডের কাছে একটি থ্রি স্টার হোটেল দু’ রাত্রি থাকার জন্য অনলাইনে বুকিং করেন। এজন্য ১২ হাজার ৮০০ টাকাও পেমেন্ট করে দেন। কিছুক্ষণ পর বুঝতে পারেন, ওই লেনদেন অনুমোদিত হয়নি অর্থাৎ লেনদেনে প্রতারণা করা হয়েছে। সুতপাদেবীর অ্যাকাউন্ট থেকে প্রথমে ৩২ হাজার ৯৬৪ টাকা এবং পর পর তিনবার ৪৫ হাজার ৫৫৬ টাকা করে মোট ১ লক্ষ ৮১ হাজার ৬৪৮ টাকা উধাও হয়ে গিয়েছে বলে অভিযোগ।

ওই বিষয়ে হোটেল কর্তৃপক্ষকে অভিযোগ জানান সুতপা। তাঁকে কিছুক্ষণের মধ্যে টাকা ফেরতের আশ্বাস দেওয়া হয়। কিন্তু বার বার আশ্বাস দেওয়া হলেও টাকা ফেরত দেওয়া নিয়ে ওই লোকজন টালবাহানা শুরু করে। তখন ওই মহিলা হোটেলের বুকিং বাতিল করেন। ওইসময় সুতপা দেবীকে টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য ফের নতুন করে হোটেলের লোকজন ফাঁদ পাতে বলে অভিযোগ। তারা টাকা অ্যাকাউন্ট থেকে ফেরত দেওয়ার জন্য নতুন শর্ত দেয় এবং কিছু নির্দেশ দেয়। প্রলোভন দেখায় যে নতুন করে তাদের অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পুরো টাকাই রিফান্ড হবে।

 সেই নির্দেশ মেনে সুতপাদেবীর ছেলে সৌভিক মণ্ডল দু’ দফায় মোট ৯৪ হাজার ৫৬১ টাকা পাঠায় হোটেলের অ্যাকাউন্টে। কিন্তু ঘটনা হয় উল্টো। ওই টাকা তাদের অ্যাকাউন্টে জমা পড়তেই তারা পাল্টা হুমকি দেয় টাকা ফেরত না দেওয়ার এবং ফোন বন্ধ করে দেয়। এই পরিস্থিতিতে সুতপাদেবী ব্যাঙ্কের কাস্টমার কেয়ারে ফোন করে সমস্ত অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করেন। ওই সময় ভূপাল ক্রাইম ব্রাঞ্চের নাম করে একটি অপরিচিত হুমকি ফোন আসে সুতপাদেবীর ছেলের কাছে। প্রতারণার পাশাপাশি ওই ঘটনায় তাঁর পরিবার আতঙ্কিত বলে থানায় অভিযোগ করেছেন। পুলিস জানিয়েছে, ওই ঘটনায় প্রতারণার পাশাপাশি অপরাধমূলক ভীতি প্রদর্শনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা জুড়ে আপনার এলাকার যে কোনও ঘটনা / সমস্যার বিষয়ে আমাদের খবর পাঠান ৯৭৩৪৪৯১১৫৫ হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে অথবা newsdesk@purbamedinipur.in ইমেলে। আপনার নাম, ঠিকানা সহ সেই সংবাদ গুরুত্ব সহকারে প্রকাশ করব আমরা।

spot_imgspot_img

এক ক্লিকে পূর্ব মেদিনীপুর

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img
spot_img
spot_img

Latest Posts

spot_img

Don't Miss